রেলওয়ে কলোনীর বস্তি এখন মাদকের হাট

মাদক, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, দখলদারিত্ব, ইভটিজিংসহ হেন কোনো অপরাধ নেই, যার দেখা মিলবে না রাজশাহী রেলওয়ে কলোনির বস্তিতে। মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স ঘোষনা দেওয়ার পর সারাদেশে প্রশাসনের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তারা নড়ে চড়ে বসেন। শুর হয় দেশ ব্যপি মাদক বিরোধী অভিযান।

পুলিশ, ডিবি ও র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়েছে অনেক মাদক ব্যবসায়ী। বর্তমানেও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলমান রয়েছে। সম্প্রতী রাজশাহী নগরীতে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান ঝিমিয়ে পড়ায় আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে মাদক ব্যবসায়ীরা। এমনি একটি চিত্র দেখা গেল রাজশাহী নগরীর চন্দ্রিমা থানাধিন হাজরা পুকুর ও রেলওয়ে কলোনীরতে অস্থায়ীভবে গড়ে উঠা বস্তি এলাকায়।

গতকাল শনিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে হাজরাপুকুর পাবনা পাড়া ও রেলওয়ে কলোনীর বস্তিতে ৩০/৩৫ জন মাদক সেবির ভীড় দেখা যায়। লাইন ধরে কিনছে হেরোইন-ইয়াবা। তাও আবার প্রকাশ্য দিবালোকে। কাছে গিয়ে দেখা গেল বস্তি এলাকায় চারিদিক থেকে আসছে মাদক সেবিরা ওই এলাকার নারী মাদক শ্যমলীর কাছে, এক হাতে টাকা নিচ্ছে অপর হাতে হেরোইন-ইয়াবার পুরিয়া বের করে খদ্দেরদের বুঝিয়ে দিচ্ছে।

আরও পড়ুন :
শুদ্ধি অভিযান চলবে সারাদেশে: ওবায়দুল কাদের
পুলিশের বাধায় আবরারের বাড়ি যেতে পারলেন না বিএনপি নেতারা

শ্যমলী রেলওয়ে বস্তি এলাকার পুলিশের সোর্স, রাজ্জাক মাডার মামলার আসামি ও কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী খায়রুলের স্ত্রী। মাদক সেবনকারীর একজনকে জিজ্ঞাসা করা হলে সে জানায় বস্তির মাদক আক্কাশ ও তেতুর সহযোগী জেলে থাকার কারনে একচেটিয়া ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে শ্যমলী।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, সারাদিন রাজশাহীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অটো, রিক্সা, সাইকেল ও মোটর সাইকেল নিয়ে শতাধিক মাদক সেবনকারী আসে বস্তির শ্যমলীর কাছে। তার কাছ থেকে হেরোইন আর ইয়াবা কিনে নিয়ে যায় তারা। সেই সাথে দুপুরের দিকে বস্তির পাসের পুকুরে স্থানীয় মা বোন ছাড়াও স্কুল কলেজের পড়ুয়া মেয়েরা গোসল করতে আসলে তাদের ইভটিজিং এর শিকার হতে হয় মাদক সেবনকারীদের কাছে।

স্থানীয়রা আরো বলেন, এদের কারনে রাস্তা দিয়ে মা বোনদের চলাফেরা করতে ব্যপক সমস্যা হয়। তারপরও তাদের মাদক ব্যবসা বন্ধের বিষয়ে বললে তারা মাদক দিয়ে ধরিয়ে দেয়ার হুমকি দেয় স্থানীয়দের। জানতে চাইলে চন্দ্রিমা থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি হুমায়ন কবির বলেন, বেশ কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে, অন্যান্যদের আটকের চেস্টা চলছে।

অক্টোবর ১৩, ২০১৯ at ২০:১২:৩০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/এমআরআর/আজা