আন্দোলন স্থগিত হবে পাঁচ দাবি বাস্তবায়ন হলেই

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ১০ দফা দাবির সবকটিই মেনে নেয়ার পরেও স্বল্পসময়ে বাস্তবায়নযোগ্য নতুন করে পাঁচটি দাবি উত্থাপন করেছে আন্দোলনকারীরা। শুক্রবার (১১ অক্টোবর) রাতে বুয়েট ক্যাম্পাসে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এসব দাবি দ্রুত বাস্তবায়নের কথা বলেছেন।

বুয়েটে আগের ঘোষিত ১৪ অক্টোবরের ভর্তি পরীক্ষা নিরাপদ পরিবেশে করতেই এসব দাবি তোলা হয়েছে। দাবিগুলো বাস্তবায়িত হলেই শিক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষার বিষয়ে প্রশাসনের সঙ্গে একমত হবেন।

পাঁচ দফা দাবিঃ

১. হত্যাকাণ্ডে জড়িত সবাইকে সাময়িক বহিষ্কার করতে হবে এবং পরে অভিযোগপত্রে যাঁদের নাম আসবে, তাঁদের স্থায়ীভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করতে হবে—এই মর্মে বুয়েট প্রশাসনকে একটি নোটিস জারি করতে হবে।

আরো পড়ুন:
তিন স্কুল ছাত্রীর বাল্যবিবাহ বন্ধ, অভিভাবকদের অর্থদণ্ড
মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ চিকিৎসায় তৈরি হলো রোবট

২. আবরার হত্যা মামলার সব খরচ বুয়েট প্রশাসনকে বহন করবে ও তাঁর পরিবারকে পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ দিতে বুয়েট প্রশাসন বাধ্য থাকবে-এটি নোটিশে লেখা থাকতে হবে।

৩. বুয়েটে সাংগঠনিক ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করে হলগুলো থেকে অছাত্র ও অবৈধভাবে হলের সিট দখলকারীদের উৎখাত করতে হবে। ক্যাম্পাসে রাজনৈতিক ছাত্রসংগঠনগুলোর কার্যালয় সিলগালা করতে হবে।

৪. বুয়েটে আগে ঘটে যাওয়া সব শিক্ষার্থী নির্যাতন, হয়রানি ও ভবিষ্যতে এ ধরনের যেকোনো ঘটনা প্রকাশের জন্য বিআইআইএস অ্যাকাউন্টে একটি কমন প্ল্যাটফর্ম যুক্ত করতে হবে এবং এর পূর্ণ মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করে শাস্তি দিতে একটি কমিটি গঠন করতে হবে। বিষয়টি একটি নোটিশের মাধ্যমে নিশ্চিত করতে হবে।

৫. প্রত্যেক হলের সব তলায় সব উইংয়ের দুইপাশে সিসিটিভি ক্যামেরা যুক্ত করতে হবে এবং এই সিসিটিভি ফুটেজ সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে—এই মর্মে একটি নোটিস জারি করতে হবে।

অক্টোবর ১২, ২০১৯ at ১১:৩৫:৩০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/ভোকা/এএএম