বিয়ের দাবি নিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে ৩ দিন অনশন

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে ৩ দিন ধরে অনশনে বসেছেন রিমা খাতুন নামের এক প্রেমিকা। গত বুধবার দুপুর থেকে উপজেলার কাউরাইল গ্রামের প্রেমিকের বাড়ির ঘরে দরজায় বসে এ অনশন শুরু করে শুক্রবার পর্যন্তও অবস্থান করছেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে প্রতিদিন ওই বাড়ীতে স্থানীয় লেকজনেরা ভীড় জমাচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার কাউরাইল গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে প্রেমিক আবু হাসেম (২২) এর সঙ্গে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার উত্তর কৃঞ্চগোবিন্দপুর গ্রামের মোহবুল হকের মেয়ে প্রেমিকা রিমা খাতুুুুনের সম্পর্ক চলছিল। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্কও হয়েছে একাধিকবার। এখন বিয়ে করতে প্রেমিক হাসেমকে চাপ দিলে নানা তালবাহানা শুরু করে।

এ কারণে বুধবার দুপুর থেকে প্রেমিকের বাড়ির ঘরে দরজায় বসে এ অনশন শুরু করে প্রেমিকা রিমা বেগম। এ নিয়ে এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এর আগেও একবার একই দাবিতে ছেলের বাড়িতে গিয়ে ওঠেছিল মেয়েটি। বিষয়টি নিয়ে গ্রামে প্রধানগণ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিরা সমাধানের চেষ্টা করলেও ছেলের পরিবারের লোকজন ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

আরও পড়ুন :
জয়পুরহাটে বিশ্ব ডিম দিবস উপলক্ষ্যে সমাবেশ
১২ অক্টোবর থেকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু

এ বিষয়ে প্রেমিকা রিমা খাতুন জানান, প্রেমিক আবু হাসেমের সাথে প্রায় বছর খানেক ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠেছে। আর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্কও স্থাপন করেছে একাধিক বার। কিন্তু অনেক দিন পেরিয়ে গেলেও বিয়ে না করে নানা রকম তালবাহানা করতে দেখে অবশেষে প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবী অনশন শুরু করেছি। বিয়ে না করলে আত্মহত্যা ছাড়া আমার আর কোন পথ নেই।

তিনি আরো জানান, তাকে হাসেমের পরিবারের লোকজন বিভিন্নভাবে নির্যাতন চালাচ্ছে বাড়ি থেকে বের করে দিতে। এজন্য তিনি প্রশাসনসহ সকলের সহযোগীতা চান।

এ বিষয়ে স্থানীয় তাড়াশ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাবুল শেখ বলেন, মেয়েটি ৩ দিন ধরে অনশনে রয়েছে শুনেছি । গ্রাম্য প্রধানদের সাথে বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করেছি। তবে ছেলের পরিবারের লোকজন গ্রাম্য প্রধানদের কথা শুনতে নারাজ। তবুও আবারও চেষ্টা করা হচ্ছে সমাধান করার।

সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ at ১৬:০৯:২৯ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/এআর/আজা