কোটচাঁদপুরে মুক্তিযোদ্ধা অফিসে ককটেল বিস্ফোরণ: বিএনপির ৩ প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন

ঝিনাইদহ জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলা নির্বাচনে, সুষ্ঠ নির্বাচন ও সুষ্ঠ পরিবেশ তৈরি করার লক্ষে বিএনপি জেলা কার্যালয়ে বুধবার সকাল ১১ টার সময় বিএনপি দলীয় প্রার্থীদের সাংবাদিক সম্মেলন। সাংবাদিক সম্মেলনে বিএনপির দলীয় প্রার্থী মোঃ আব্দুুর রাজ্জাক বলেন, নির্বাচনের কোন সুষ্ঠ পরিবেশ নেই।

গতকাল সন্ধায় ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওামীলীগের নেতা কর্মীরা কোটচাঁদপুর মুক্তিযোদ্ধা অফিসে ককটেল বিস্ফোরণ করে। তারপর বিএনপি অফিস ভাংচুর ও লুটপাট করে। এবং পুলিশ এসে পৌর বিএনপি সভাপতি সাবেক মেয়র, ও ধানের শীষের প্রধান সমন্বয় সালাউদ্দিন বুলবুল সিডলকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাই।

সকালে সিডলকে বিস্ফোরণ মামলায় কোর্টে চালান করে জেল হাজতে প্রেরন করে। বিএনপি প্রার্থী আরো বলেন, ক্ষমতাসিন দলের প্রার্থী ও দলীয় নেতা কর্মিরা নির্বাচন আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে চলেছে। তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি, মেয়রা, দলীয় নেতারা এলাকায় নির্বাচনের প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে। যা নির্বাচন বিধি পরিপন্থী।

আরও পড়ুন :
শতাধিক বাউকুলের গাছ কেটে দিল দুর্বৃত্তরা: থানায় জিডি
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি: সমাজসেবা অধিদপ্তর বাংলাদেশ

এছাড়া আওয়ামী লীগের প্রার্থী বলেন, ইভিএম এর মাধ্যমে ভোট হবে। যে যে নৌকায় ভোট দিবে সে সে ভোট কেন্দ্রে যাবে। ভোট না দিলে কেন্দ্রে যাবার প্রয়োজন নেই। তিনি আরো বলেন, সাধারণ ভোটাররা এখন ভয়ে আছে। সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, এই অভিযোগ গুলো আপনি নির্বাচন কমিশন, নির্বাচন রিটার্নীং কর্মকর্তাকে জানিয়েছেন কি?

উত্তরে বিএনপি প্রার্থী বলেন, জেলা নির্বাচন অফিসার, ডিসি, পুলিশ সুপার, ওসিকে লিখিত ভাবে জানিয়েছি। নির্বাচন পরিবেশ প্রশাসনকেই তৈরি করতে হবে। না হলে তিনি হুশিয়ার করে বলেন, আমরা নির্বাচন থেকে বয়কট করবো।

সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি খুলনা বিভাগীয়সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, জেলা বিএনপি আহবায়ক এস এম মসিউর রহমান, জেলা বিএনপি সদস্য সচিব ঝিনাইদহ -২ আসনের ঐক্য ফ্রন্ট প্রার্থী এ্যাডঃ এম এ মজিদ, জেলা যুগ্ম আহবায়ক জাহিদুজ্জামান মনা, যুগ্ম আহবায়ক এ্যাডঃ কামাল আজাদ পান্নু, যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল মজিদ বিশ্বাস, ভাইচ চেয়ারম্যান প্রার্থী রুস্তম আলী, মহিলা ভাইচ চেয়ারম্যান প্রার্থী নাসিমা খাতুন, ঝিনাইদহ সদর উপজেলা বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল ইসলাম ফিরোজ, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম পিন্টুসহ আরো অনেকে।

এ সময় সদস্য সচিব এমএ মজিদ বলেন, নির্বচনীয় পরিবেশ প্রশাসন যদি সৃষ্টি না করে তাহলে আমরা বিএনপি নির্বাচন থেকে প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হবো।

অক্টোবর ০৯, ২০১৯ at ১৬:৩৯:৩০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/এআরটু/আজা