অপহৃত মাদ্রাসাছাত্রী উদ্ধার, গ্রেফতার ৪

মুক্তাগাছা থানা পুলিশ অপহরণের পাঁচদিন পর জামালপুরের ঘোড়াধাপ এলাকা থেকে অপহৃত ভিকটিম মাদ্রাসাছাত্রী উদ্ধার করেছে।

এ সময় ৪ যুবককেও গ্রেফতার করা হয়। বুধবার রাতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। থানায় অপহরণ মামলা হয়েছে।

থানা পুলিশ জানায়, মুক্তাগাছা উপজেলার পারুলীতলা গ্রামে মেয়েটির বাড়ি। সে জামালপুরের ঘোড়াধাপের আয়েশা সিদ্দিকা মহিলা মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। ওই এলাকায়ই তার নানার বাড়িতে থেকে মাদ্রাসায় পড়ত।

আসা যাওয়ার পথে মাদ্রাসা এলাকার বখাটে নয়ন মিয়া ওই ছাত্রীকে উত্যক্ত করত।এ নিয়ে কয়েকবার নয়নকে সতর্ক করা হয়। তারপরও সে ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করা অব্যাহত রাখে।

আরো পড়ুন:
যৌন হয়রানির প্রতিবাদে উত্তাল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়!
ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় রাবি প্রাধ্যক্ষের কক্ষে তালা!

সর্বশেষ শনিবার বিকেলে মাদ্রাসা ছুটির পর ওই ছাত্রী তার নিজ বাড়ি মুক্তাগাছার পারুলীতলায় আসার পথে নয়ন তার কয়েকজন সঙ্গীর সহযোগিতায় ছাত্রীটিকে বলপূর্বক সিএনজি চালিত অটোরিকশায় উঠিয়ে নিয়ে যায়।

ঘটনার পাঁচদিন পর বুধবার রাতে নয়নের বাড়ি থেকে অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে মুক্তাগাছা থানা পুলিশ। এ সময় আব্দুল হান্নানের ছেলে নয়ন (১৮), দুদু মিয়ার ছেলে জাহিদুল (২৩), মাঈন উদ্দিনের ছেলে মিলন (২৫), দুদু মিয়ার ছেলে মজিবুরকে (৪৫) গ্রেফতার করে পুলিশ।

মুক্তাগাছা থানার ওসি মোহাম্মদ আলী মাহমুদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অপহরণের পাঁচদিন পর জামালপুরের ঘোরাধাপ গ্রাম থেকে অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়।

এ সময় অভিযুক্ত চার যুবককেও আটক করা হয়। বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) অপহরণ মামলায় তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯ at ২৩:১০:২৯ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/এমএইচএস/এএএম