প্রতিমন্ত্রীর আগমনে বন্দর সেজেছে বসুন্ধরার আটা-ময়দায় !

নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্‌মুদ চৌধুরী আগমন উপলক্ষে বেনাপোল স্থলবন্দর সেজেছে বসুন্ধরা গ্রুপের আটা ময়দা এবং সুজির বিজ্ঞাপনে।

প্রায় আড়াল করে রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

তাদের ভাষ্যমতে, যার জন্ম না হলে বাংলাদেশ সৃষ্টি হতো না। যার নেতৃত্বে স্বাধীন দেশ জন্ম হয়েছে সে মহান নেতার ছবি কেন উল্টোপাশে জনসম্মূখের আড়াল করে বিজ্ঞাপন টানানো হলো।

স্থানীয় সংবাদিগণ অভিযোগ করে বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সরকার নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। যার ফলে আমাদের বাংলাদেশ এখন বিশ্বের বুকে সম্মানিত ভাবে এগিয়ে চলেছে। এছাড়া, বৈদেশিক লেনদেনের ক্ষেত্রে বেনাপোল স্থলবন্দর অতিব গুরুত্বপূর্ণ ।

পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের সাথে পণ্য আদান প্রদানের পাশাপাশি দেশ-বিদেশের বৈধ পাসপোর্ট যাত্রীদের চলাচল বন্ধ হয়ে থাকে। একটি দেশের পরিবেশ পরিস্থিতি সম্মানের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয় তখনই যখন জাতি তার নেতার প্রতি সম্মান দেয়।

আরও পড়ুন :
জুট মিলের বর্জ্য থেকে জন্ম নিচ্ছে মশা, ডেঙ্গু আতঙ্কে এলাকাবাসী
কোটি টাকাসহ ৭২০ ভরি স্বর্ণালংকার উদ্ধার

দেশের প্রতিটি দপ্তরে জাতির জনকের ছবি অতি সতর্কতার সাথে টানানো হয়ে থাকে। কিন্তু বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ ছবিটি সম্পূর্ণভাবে অসম্মানিত করে বঙ্গবন্ধুর ছবিটি পাশে রেখে বসুন্ধরা গ্রুপের আটা ময়দা এবং সুজির বিজ্ঞাপন চিত্রকে প্রাধান্য করে রেখেছে।

 

তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, জাতির জন্য এটা খুবই অপমানজনক। বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকা রাজাকার এবং কিছু দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা কর্মচারীরা এ ধরণের কার্মকান্ড করেছে বলেও তারা মন্তব্য করেন।

বিষয়টি স্থানীয় সাংবাদিকদের নজরে পড়লে তারা এর তীব্র প্রতিবাদ করে। এ সময় বন্দর কর্তৃপক্ষ নৌ প্রতিমন্ত্রীর বৈঠককে সাংবাদিকদের উপর চড়াও হয়ে তাদেরকে বের করে দেওয়া হয়। ফলে প্রতিমন্ত্রীর বন্দর পরিদর্শন এবং মন্ত্রীর দিক-নির্দেশনার বিষয় গুলি প্রচারে বাধা সৃষ্টি হয়।

বন্দর কর্তৃপক্ষের এহনো অপমানজনক কর্মকান্ডে বেনাপোল ও শার্শার সকল সাংবাদিকবৃন্দ নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রীর সংবাদ প্রচার থেকে নিজেদেরকে বিরত রেখে এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন। একই সাথে বন্দর কর্তৃপক্ষেরে এহেন কর্মকান্ডে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ধিক্কার জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন।

সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯ at ১৮:০৪:৩০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/আজা