বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে স্বামীর মৃত্যুতে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আত্মহত্যা

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে স্বামীর মৃত্যুর সংবাদ শুনে আত্মহত্যা করেছে তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী মিনতি দাস।

নিহত নিবলু সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার রামপুর গ্রামের সত্যেন্দ্র দাস বেনার ছেলে। তিনি থাইগ্লাস লাগানোর কাজ করতেন।

রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জামালগঞ্জের মসজিদ মার্কেটের তৃতীয় তলায় লন্ডন প্রবাসী লিটন আফিন্দির মালিকানাধীন দোকানকোঠায় থাইগ্লাস লাগাতে গিয়ে নিবলু দাস বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন।

স্বজনরা তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে অবস্থানকালে সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে স্ত্রী মিনতি দাস আত্মহত্যা করেন।

আরও পড়ুন:
বেসরকারি সংগঠন ‘চেষ্টা’র উদ্যোগে বীরকন্যাদের মাঝে গরু বিতরণ
জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা জারি

তিনি দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন বলে তার স্বজনরা জানিয়েছেন। সকাল ৯টায় জামালগঞ্জ পুলিশ মিনতি দাসের ফাঁস লাগানো লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

চলতি বছরের জুলাই মাসে জেলার রঙ্গিয়ারচর গ্রামের মিনতি দাসের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন নিবলু।

জামালগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সাইফুল আলম জানান, এ ব্যাপারে দুটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়নাতন্তের জন্য লাশ সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ at ২১:২০:২৯ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/জাআভূঁ/এএএম