অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

দামুড়হুদায় সরকারি আইন অমান্য করে অবৈধভাবে করা হচ্ছে বালু উত্তোলন। কখনও ইটভাটায় আবার কখনও রাস্তা নির্মাণ কাজের দোহায় দিয়ে প্রভাবশালীরা ফসলি জমির মাটি কেটে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি করে অবাধে চালিয়ে যাচ্ছেন ওই সমস্ত অবৈধ কার্যক্রম।

ফসলি জমির সাথেই মাটি কেটে গর্তের সৃষ্টি করায় একদিকে যেমন কমে যাচ্ছে আবাদি জমির পরিমাণ, অন্যদিকে হুমকির মুখে পড়ছে ওই বিশাল গর্তের পার্শ্ববর্তী ফসলি জমি।

ফলে হুমকির মুখে পড়া ফসলি জমির মালিকরা পড়েছেন বিপাকে। বিষয়টি দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানোর সাথে সাথে নেয়া হয়েছে আইনি ব্যবস্থা।

রোববার দামুড়হুদা চিৎলা-গোবিন্দহুদা গুচ্ছগ্রামের অদূরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে এমন খবর পেয়ে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম মুনিম লিংকন ছুটে যান ঘটনাস্থলে। ৪টি ট্রাক্টরসহ আটক করা হয় ৫ জন শ্রমিককে।

আরও পড়ুন:
আঁখিতারা জেনারেল হাসপাতাল সিলগালা ও নগদ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা
বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিটে দুই নির্মাণ শ্রমিক গুরুতর আহত

তাদের বিরুদ্ধে বালুমহল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ১৫/১১ ধারায় তাৎক্ষণিক ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে মোট ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানার টাকা নগদে পরিশোধ করায় তাদেরকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

ভ্রাম্যম্যাণ আদালতের বিচারক দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম মুনিম লিংকন জানান, ইটভাটা চালাতে অথবা রাস্তানির্মাণ কাজের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা খুঁজতে হবে।

সরকারি নিয়ম বহির্ভূতভাবে মাটি কেটে বা বালু উত্তোলন করে আবাদি জমি হুমকির মধ্যে ফেলবে এটা মেনে নেয়া যাবে না। যারা করবে তাদেরকে আইনের আওতায় নেয়া হবে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা কাজে সহযোগিতা করেন দামুড়হুদা মডেল থানার এসআই রামপ্রসাদ সরকার, সার্টিফিকেট সহকারী জিহন আলী ও উপজেলা আইসিটি টেকনিসিয়ান খাইরুল কবির দিনার।

সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯ at ২৩:১৬:২৯ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/মোতার/এএএম